লন্ডনে তামিমের স্ত্রীকে এসিড মারার চেষ্টা

এসেক্সের হয়ে ইংল্যান্ড খেলতে গিয়েছেন ওপেনার তামিম ইকবাল। কিন্তু একটি ম্যাচ খেলেই দেশের উদ্দেশ্যে বিমানে চড়েছেন তামিম ইকবাল। এসেক্স বলছে কারণটা ব্যক্তিগত, অনুরোধ করা হয়েছে তামিম ইকবালের প্রাইভেসী রক্ষা করতেও।

তবে আমাদের ইংলিশ পত্রিকা ডেইলি স্টার বাংলা পত্রিকা প্রথম আলো জানাচ্ছে, শুধু ব্যক্তিগত নয়, কারণটা ভয়ঙ্করও বটে। তামিমের স্ত্রী আয়েশা কে নাকি এসিড ছুঁড়ে মারার চেষ্টা করেছেন।

ঘটনা সত্যি হলে ব্যাপার টা চমকে উঠার মতই। পত্রিকা গুলির মতে, ১০ জুলাই রাতে তামিম ইকবাল  তার স্ত্রী আয়েশা ইকবাল কে নিয়ে রাতের খাবার খেতে রেস্টুরেন্টে গিয়েছেন। সঙ্গে ছিলেন তাদের একমাত্র সন্তান আরহাম। খাওয়া শেষ করে বের হওয়ার সময় কিছু লোক তাদের ধাওয়া করে। দৌড়ে তারা নিরাপদ আশ্রয়ে চলে গেলে বড় ধরনের বিপদ থেকে বেঁচে যান তারা। তবে নাম প্রকাশে আনিচ্ছুক বিসিবির এক কর্মকর্তা প্রথম আলোকে জানিয়েছেন, আক্রমণকারীদের হাতে নাকি এসিড ছিল এবং তাদের দিকে নাকি ছুঁড়ে মারার চেষ্টাও করে ছিল।

এই নিয়ে মন্তব্য করতে চায়নি কেউ। এসেক্স ক্লাব এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তামিম ইকবাল ব্যক্তিগত কারণে ক্লাব ছাড়ছেন, আমরা তার মঙ্গল কামনা করছি। এই সময়ে তামিমের ব্যক্তিগত জীবনের প্রতি সন্মান জানালে আমরা খুশি হবো। গতকাল রাতেই দেশের জন্যে ফ্লাইট ধরেছেন তামিম পরিবার। আজ বিকেল বা সন্ধ্যায় ঢাকায় অবতরণ করার কথা তাদের।

তামিমের স্ত্রীর আয়েশা কে এসিড টার্গেট করার কারণ এটাই হতে পারে যে, সে রাতে আয়েশা হিজাব পরে বের হয়েছেন। সেটা তিনি সবসময় ই করে থাকেন। সাম্প্রতিক ইংল্যান্ডে জঙ্গি হামলার পর থেকে সেখানে ইসলাম বিরোধী বেড়ে গেছে। রমজানে তারাবীর নামাজ পড়ে বের হওয়া মুসল্লিদের উপর ইচ্ছেকৃত ভাবে ট্রাক উঠিয়ে দেন এক ট্রাক চালক। গত ২১শে জুন ইস্ট লন্ডনেও এসিডের শিকার হয়েছেন ২ মুসলিম নাগরিক। এখন পর্যন্ত মনে হচ্ছে ঠিক সেই কারনেই তামিমের স্ত্রী আয়েশাও তাদের শিকার হয়েছেন।

 

Comments

comments