সহজে নিজেকে স্মার্ট করে তুলুন ৫টি উপায়ে

১ঃ কথা বলুন বুঝেশুনে : আপনার কি অনেক কথা বলার অভ্যাস? তাহলে বাড়তি কথা বলা একটু কমিয়ে দিন। যতটুকু কথা বলার প্রয়োজন ঠিক ততটুকুই কথা বলার অভ্যাস করুন। কখন,কুথায় কি বলতে হবে তা বুঝার চেষ্টা করু।। কথা বলুন বুঝেশুনে এবং গুছিয়ে। আপনি কি বলতে চাইছেন তা যেনো আপনার বক্তব্যে পরিষ্কার বোঝা যায়।

 

২ঃ খাবার খান নিঃশব্দে : যাঁরা শব্দ করে খাবার খান তাঁদের কেউ পছন্দ করে না। সকলেই তাঁদের দিকে বিরক্তির চোখে তাকায়। নিঃশব্দে খাবার অভ্যাস করুন। খাবার ধীরে ধীরে চিবিয়ে খান,এতে শব্দ কম হবে। খাবার সময় যতটা সম্ভব কম কথা বলুন।

 

৩ঃ পোশাক পরুন রুচিশীল : হালফ্যাশনের বা ট্রেন্ডি পোশাক পরা মানেই স্মার্ট হওয়া নয়। আপনাকে পোশাকটা আদতে মানাচ্ছে কিনা, সেটাই হলো আসল কথা। পোশাক-আশাক যদি ঠিকমতো নির্বাচন না করতে পারেন তাহলে আপনার স্মার্টনেস অনেকাংশেই মার যাবে।তাই পোশাক পরুন নিজের ব্যক্তিত্ব অনুযায়ী। হালফ্যাশনের পোশাক নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ থাকলে বেছে নিন ট্রাডিশনাল বা সব সব সময়েই যেসব পোশাকের চল থাকে, সেই পোশাকগুলো। কি রঙের পোশাক বেছে নিবেন তা বুঝতে না পারলে পরুন হালকা যেকোন রঙের পোশাক। হালকা রং সবাইকেই মানিয়ে যায়।

 

৪ঃখাবার খাওয়ার রীতিনীতি : খাবার খাওয়ার সময় কিছু রীতিনীতি আছে সেগুলো শিখে নিন।যেমন চামচ,কাঁটা চামচ,ছুরি ব্যবহারের নিয়ম,ন্যাপকিন ব্যবহারের নিয়ম, কোনটার পরে কী খেতে হয় ইত্যাদি।আপনার খাবার ধরন আপবার স্মর্টনেস বাড়িয়ে তুলবে বহু গুন।

 

৫ঃ ভালো ব্যবহার করুন : যেকোনো পরিবেশে মানিয়ে চলাটাই স্মার্টনেসের অন্যতম পরিচায়ক। আপনার মনের অবস্থা যদি খারাপ ও হয়, ভালো ব্যবহার করুন সবার সাথে। অল্পতেই বিরক্ত হবেন না বা রেগে যাবেন না। ধৈর্য ধরে ধীরস্থির ভাবে সবার সাথে ভালো ব্যবহার করে যান। প্রতিটা সময় ভালো আচরন আপনাকে গড়ে তুলবে একজন স্মর্ট মানুষ হিসেবে

Comments

comments