Rape case

প্রেমের ফাঁদে ফেলে আবারও ধর্ষণের শিকার তরুণী

সাফাত আহমেদ ও তার বন্ধু নাইম আশরাফের ধর্ষণের কথা বলে যাওয়ার আগেই আবার রাজধানীর বনানী থানায় যোগ হল ধর্ষণ মামলা।

বনানীর ২ নাম্বার রোডের ২১৪ নাম্বারে এক ব্যবসায়ীর বাসায় এই ঘটনা ঘটে বলে মামলা দায়ের কারী মামলায় এই কথা জানায়।
মামলার সূত্র মতে, বোরহান উদ্দিন বেলালের ছেলে বাহার উদ্দিন (২৮) কে মামলায় একমাত্র আসামী করা হয়েছে। ধর্ষিতা রাজধানীর বাসিন্দা। আসামী বেলাল কে এখনো গ্রেফতার করেনি।

মামলার এজাহারে ঐ তরুণী উল্লেখ করেন, ১১ মাস আগে তাদের মাঝে ফেসবুকের মাধ্যমে পরিচয় হয়। সেখান থেকেই বন্ধুত্ব। এরপর মাঝে মধ্যে দেখা সাক্ষাৎ আর ঘোরাঘুরি হতো। এবং গত ৪ মাস আগে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক হয়।

ঘটনার রাত ৯টায় বেলাল তরুণীকে জন্মদিনের কথা বলে। এবং তাকে জন্মদিনের পার্টিতে আমন্ত্রণ করেন। এবং সে সুযোগে তরুণীকে বেলালের মায়ের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কথাও বলেন। বেলাল তরুণীর সাথে তার মায়ের পরিচয় দিয়ে কোন এক মহিলাকে কথা বলান। এবং তরুণী তাকেই তার মা ভেবে নেন। এরপর রাত ১০টায় সে রিক্সায় করে বেলালের বাসায় সামনে গেলে বেলাল তাকে রিসিভ করে বাসায় নিয়ে যায়।

বাসায় গিয়ে তরুণী কাউকে দেখতে না পেয়ে বেলালকে জিজ্ঞেস করলে বেলাল জানায়, তার বাবা-মা অসুস্থ। তারা ঘুমিয়ে গেছেন। জোরে কথা বলা যাবে না।

বাসায় তরুণী জন্মদিন পার্টির কোন আলামত দেখতে না পেয়ে ভয় পেয়ে বাসায় যেতে চাইলে বেলাল তাকে যেতে দেয়নি। বেলাল তাকে খাবারের সাথে নেশাজাতীয় কিছু খাবায়।

মামলায় উল্লেখ করেন, রাত দেড়টায় আমাকে ধর্ষণ করেন। আমি চিৎকার করলে আমার ব্যাগ রেখে আমাকে বাসা থেকে বের করে দেয়। বেলাল আমাকে আগেও বিয়ের কথা বলে ধর্ষণ করে। আমাকে ভয় দেখায় আমি কাউকে এইসব বললে আমার ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দিবে।

Comments

comments