নিজের মূর্খতা

নিজের অজান্তেই অন্যের কাছে নিজের মূর্খতা প্রকাশ করছি আমরা।

বিশ্বেৱ বৃহত্তম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক দিন দিন অপকাজে বেশি ব্যবহাৱ হচ্ছে। শিক্ষাৰ্থীৱা লেখাপড়া বাদ দিয়ে বেশিৱভাগ সময় কাটাচ্ছে এই ফেসবুকে । তবে বৰ্তমানে এই ফেসবুকে যে জিনিসটি বেশি হচ্ছে তা হলো বিভিন্ন চেইন ম্যাসেজ |

বিভিন্ন কথা বলে বলা হয় ম্যাসেজটি অন্যকে সেন্ট বা ফৱওয়াৰ্ড কৱতে| আৱ এসব ম্যাসেজের শেষে বলা হয়ে থাকে সচেনতায় – বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কিংবা পুলিশ বা বিটিআৱসি। যা মোটেও সত্য নয়।

সকলের প্রতি অনুরোধ থাকবে যে, সবাই এই সব ম্যাসেজ আসলে অন্যদের পাঠানো থেকে বিরত থাকবেন। এই ম্যাসেজ গুলি যেমন বিরক্তিকর এমনি স্পামও। কেউ রিপোর্ট করলে আপনার আইডিও হারাতে পারেন।

মানসিক সমস্যার মানুষ গুলি এই ধরণের ম্যাসেজ গুলি তৈরি করে, আর আমরা সে সব ম্যাসেজ অন্যদের দিয়ে নিজেকে মূর্খের পরিচয় দিই। কোন জ্ঞানী, সচেতন মানুষ এমন কাজ করে না। এমন ম্যাসেজ কখনো কোন বুঝের মানুষের থেকে পাবেন না।

নিচে এমন একটি ম্যাসেজ-

13 October 2017 রাত 9:00 PM থেকে রাত 10:00 PM এই এক ঘন্টা সময়ের মধ্যে বাংলাদেশের সকল Android ফোনে Blue whale গেম ঢুকিয়ে দেওয়া হবে। যা প্রবেশের ফলে আপনার ফোনের সকল Parsonal information, Facebook, Twitter, imo,whatsapp সহ সকল কিছু ধ্বংস করতে সক্ষম।

তাই আগামিকাল রাত 9:00 PM থেকে 10:00 PM পর্যন্ত আপনার ফোন বন্ধ রাখুন। আর দেশের সেবায় এটি বেশি বেশি ফরোয়ার্ড করুণ। জনসচেতনতায়: BTRC

অনেকসময় আবাৱ বিভিন্ন সাহায্যেৱ কথা বলে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এই চক্ৰ| যাৱ স্বীকাৱ হচ্ছে সাধাৱণ জনতা থেকে শুৰু কৱে অনেক জ্ঞানীগুনী ব্যক্তিও| প্ৰশাসনেৱ উচিত দ্ৰুত এসব চক্ৰেৱ সদস্যদেৱ গ্ৰেফতাৱ কৱে আইনেৱ আওয়ায় আনা|

Comments

comments